পারসোনাল

সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন হট টিপস্ : গুগলের নয়া কৌশল

লিখেছেন: পান্থ বিহোস

সম্প্রতি (৭ নভেম্বর ২০১১) গুগল তার পেজ রেঙ্ক আপডেট করেছে। নতুন এই আপডেটে অনেকের-ই পেজ রেঙ্ক ডাউন হয়ে গেছে। ব্যাপারটা হতাশার হলেও আমি বলবো আশাব্যঞ্জক। কেন, জানেন? কারণ, গুগল পয়সা খরচ করে যারা এসইও করে তাদের পক্ষে নয়। তারা সঠিক কাজের সঠিক মূল্যায়ণ করতে চেষ্টা করছে। যদিও তা পুরোপুরি সম্ভব নয়। তবুও গুগল চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

আমি আসলে কোনো এসইও এক্সপার্ট না। জাস্ট হালকা ধারণা আছে। নিজের সাইটের প্রয়োজনে শিখতে এবং জানতে হয়েছে। কিন্তু অনেকেই মনে করেন, আমি এ ব্যাপারে অনেক জানি। কেন মনে করেন, জানিনা। তবে মানুষের মুখে শুনতে ভালো লাগে, তাই বাধ্য হয়ে আরও কিছু শিখেছিলাম এবং নিজেকে আপটুডেট রাখার চেষ্টা করি… 🙂 । আর আমার এই জানার পরিধি এখানে সবার সাথে শেয়ার করার চেষ্টা করবো। তবে আমি যেহেতু প্রফেশনাল না, তাই লেখার কন্টিনিউটি ধরে রাখতে পারবো না। যখন যা মনে আসবে তাই লিখে ফেলবো। আশা করি এই ছোট ছোট টিপস এন্ড ট্রিকসগুলো অনেকরই কাজে লাগবে।

এরই ধারাবাহিকতায়, আজকেই শুরু করলাম। এবং প্রথম পোস্ট সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন টিপস-এর উপর। এই লেখায় মাত্র ৩টি টিপস দেবো আপনাদের। আপনি যদি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন নাও জানেন, তবু এই তিনটি টিপস যদি মেনে চলতে পারেন তাহলে গুগল যতো কৌশল-ই করুক না কেন, আপনার পেজ রেঙ্ক বাড়তেই থাকবে… বাড়তেই থাকবে… 🙂 ।

তাহলে চলুন সংক্ষেপে তিনটি টিপস জেনে নেয়া যাক-

  • প্রচলিত একটা কথা আছে- কনটেন্ট ইজ কিং। হ্যাঁ, এ কথা সত্য। আপনার সাইটে নিয়মিত কনটেন্ট দিন, গুগল বট এসে খুশি হবে, বট খুশি হলে প্রচুর ভিজিটর পাঠাবে। ভিজিটর এসে খুশি হলে সে আবারও আসবে। রিটার্ন ভিজিটরকে গুগল বট খুব গুরুত্ব দেয়, ফলে সে আরও ভিজিটর পাঠাবে।
  • সাইট কনটেন্ট যোগ করুন টাইম-টেবল মেনে। সপ্তাহে ৩টি যদি পোস্ট দেন তাহলে ৩টিই দিন। কোনো সপ্তাহে ৭টি আবার পরের সপ্তাহে ১টিও না, এমন যেনো না হয়। কারণ এতে গুগল বট রাগ (?) করতে পারে। এবং রাগ করতে পারে আপনার ভিজিটরও। সুতরাং বিষয়টিতে গুরুত্ব দিন।
  • ভিজিটর/পাঠকের মতো গুগল বটও কনটেন্ট-এর মান বুঝতে পারে। সুতরাং একটা কনটেন্ট/পোস্ট সাইটে দেয়ার আগে লেখাটিকে তথ্যবহুল, সহজ-সরল, যুক্তিপূর্ণভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করুন। একূল-ওকূল দুকূল-ই রক্ষা হবে।

এই তিনটি টিপস মেনে চলার জন্য আপনাকে এসইও এক্সপার্ট হওয়া লাগবে না। বেকলিংক, ডুফলো লিংক এইসব হাবিজাবি বিষয় নিয়ে আপনাকে অর্থ কিংবা সময় নষ্ট করতে হবে না। জাস্ট এই তিনটা টিপস মেনে চলুন, আমি আপনাকে নিশ্চয়তা দিয়ে বলছি- আপনার সাইটের পেজ রেংক বৃদ্ধি পাবেই।

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:

লেখক সম্পর্কে জানুন:

পান্থ বিহোস

ভবিষ্যতে ফুলটাইম লেখক হিসেবে প্রফেশন তৈরি করার ভাবনায় আপাতত ফুলটাইম ভাবুক। আর পার্টটাইম ওয়ার্কার।

মন্তব্য লিখুন

12 টি মন্তব্য

  • ব্যাকলিংক-ডুফলো বিষয়ে আপনার বক্তব্যটাকে জোরালো সমর্থন জানাচ্ছি। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেখা যায় নতুনরা ব্যাকলিংক-ডুফলো মেলাতে হাতাড়াতে হাতড়াতে স্পামের পর্যায়ে পৌছে যায়। 🙁

    • @অতিরিক্ত একজন, ভাই, কথাটা ঠিক। টাইম-টেবল মেনে চলা সত্যিই কঠিন। তবে এটার একটা চমৎকার সমাধান আছে। নিজের অভিজ্ঞতা বলছি- আমার এডসেন্স সাইট নিয়ে যখন নিয়মিত কাজ করেছি, তখন একটা সাইটে প্রতি সপ্তাহে ৫টা আর্টিক্যাল পোস্ট করতাম। এবং সবগুলো পোস্ট আমি সপ্তাহের একদিনেই করতাম। কিন্তু পোস্টগুলো কিন্তু একই দিনে পাবলিশ হতো না। ওয়ার্ডপ্রেসে চমৎকার সমাধান আছে এর- শিডিউল পোস্ট। হ্যাঁ, আপনি শিডিউল পোস্ট করে নিয়মিত হওয়ার চেষ্টা করতে পারেন। বিশেষ করে একটা সাইটের শুরুর সময়ে এই টাইম-টেবল মানতে পারলে খুব কাজ হয়, নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বললাম।

  • @Pantho Bihosh Vi Ami Bangla Lekhte Pari Na…..Tai Sorry.
    Ami Apner Kotheter Sathe Ekmot But Vi Ami Affiliate er kaj Kori Tai Amar Kono Time Table Maintain Korte Pari Na Coz Hoyto Kono Din 5 Ta or 10 Post Dite Hoy…..Please Vi Help Koren…..

  • খুবই ভাল লাগল আপনার এই পোষ্টটি পড়ে। আসলে খুবই তথ্যসমৃদ্ধ পোষ্ট এটি।

    ধন্যবাদ বিহোস।

  • Great article. I’ve enjoyed this contribution. Its nice to see every questions answered in a blog post like this. I will add this post on my blog and link to it. Thanks for a clear informative post, I’ve learned a lot. I hope to see videos though as I can be A.D.D and reading articles is not my favorite thing to do online. So what I do sometimes is just print the whole thing and read offline.

  • আসলে পোস্ট লেখার সময় টাইটেলে বাড়তি গুরুত্ব দিলে ভাল ভিজিটর পাওয়া যায়। তবে নিয়মিত লেখাটাই হয়ে ওঠে না।
    ধন্যবাদ বিহোস ভাইকে।