পারসোনাল

আমার ডোমেইন-হোস্টিং বিজনেস এবং একটি চরম ও মজার অভিজ্ঞতার কথা…

আমার কাছেরজন যারা আছেন এবং পরিচিতজনরাও জানেন- আমি ডোমেইন-হোস্টিং-এর ছোট বিজনেস করি। কেন করি সেটাও সবাই জানেন। যেসব নিয়ে আজ কিছু বলবো না। আজকে একটি অভিজ্ঞতার কথা বলি… তবে তার আগে ভূমিকমতো কিছু একটা বলা প্রয়োজন।

নমুনা ভূমিকা

ওডেস্ক মার্কেটপ্লেসে সফলতার প্রথম পর্যায়ে ফেসবুকে একটা গ্রুপ ওপেন করেছিলাম- ওডেস্ক হেল্প

কারণ হিসেবে ব্যাপারটা ছিলো এরকম- আমি ওডেস্কে কাজ করি অনেকেই কিভাবে কিভাবে জেনে গেছেন। ফেসবুকে বসলে অনেকেই নক করেন। বিভিন্ন বিষয় জানতে চান। কিন্তু দু:খের ব্যাপার হচ্ছে- আমি সব প্রশ্নের জবাব জানি না। কিন্তু এটা কেউ বিশ্বাস-ই করতে চায় না। ভাবে- আমি হয়তো ভাব নেই। জবাব দেই না। হেল্প করি না।
চিন্তা করলাম- ওডেস্কে নিয়ে একটা গ্রুপ করবো ফেসবুকে। আমার পরিচিত অনেকেই ওডেস্কে কাজ করেন। যাদের দ্বারা আমি অনুপ্রাণিত। তাদেরকে এই গ্রুপ-এ এড করবো। ওডেস্ক হেল্প গ্রুপ ক্রিয়েট হলো। এখানে দু’ধরণের মানুষ আছেন। স্যরি, ভুল বললাম- তিন ধরণের মানুষ আছেন।

  • এক্সপার্ট (তাদের জন্যই এই গ্রুপ এতো জনপ্রিয় এখন… :D)
  • যাদের হেল্প প্রয়োজন (মূলত এদের জন্যই এই গ্রুপ)
  • যারা অন্যদের বিরক্ত করে (এক্সপার্ট এবং শিক্ষানবিশদের। তবে আশার কথা এদের সংখ্যা কমে যাচ্ছে এখন… :))

যাই হোক, অন্যদের কথা বলতে পারি না। আমি নিজে ওডেস্ক হেল্প গ্রুপ থেকে প্রচুর হেল্প পেয়েছি এবং পাচ্ছি।

একদিনের কথা…

ওডেস্ক হেল্প গ্রুপের শুরুর পর্যায়। সবার মাঝে গ্রুপটি জনপ্রিয় হওয়া শুরু হয়েছে। আমি এবং কয়েকজন বন্ধু নতুনদের হেল্প করার জন্য রাত-দিন গ্রুপে পড়ে থাকি।
একটা ছেলে (ওডেস্ক হেল্প গ্রুপের একটিভ মেম্বার) আমার কাছে প্রাইভেট মেসেজ পাঠালো- “ভাইয়া, আমার দু’টি ডোমেইন এবং এক জিবি হোস্টিং দরকার।” বললাম, নো প্রবলেম, দেয়া যাবে। কিন্তু সে দাম নিয়ে খুব সমস্যা করছিলো। দাম নাকি অনেক বেশি। এটা আসলেই ঠিক। আমি অন্যদের চেয়ে একটু বেশি দাম নেই। যারা ডোমেইন-হোস্টিং নিয়ে ন‌্যুনতম জ্ঞান রাখেন তারা বুঝতে পারবেন কেন দাম কম বেশি হয়। এখানে আর বেশি কিছু বলার নেই। তবু আমি তাকে বললাম- আপনার যখন দরকার হবে আপনি বলবেন, আমি যথাসাধ্য কম নেবো। সে বললো, ডোমেইন-হোস্টিং কিনলে সে আমার কাছ থেকেই কিনবে। আমিও বললাম- ওকে।

তারপরদিনের কথা…

“ভাইয়া, আমি ওডেস্ক হেল্প গ্রুপের এডমিন হতে চাই। আমাকে এডমিন করে দেন।” ঐ ছেলেটা ফেসবুকে আমাকে মেসেজ দিয়েছে। মনে মনে ভাবলাম- মামাবাড়ি আবদার নাকি! কিন্তু মেসেজ দিয়ে জানালাম- স্যরি ভাইয়া, ওডেস্ক হেল্প গ্রুপের জন্য আপাতত আর কোনো এডমিন নেয়া হবে না। মামুন ভাই, আমি আর বিথী আপু-ই সব মেনেজ করতে পারবো… 🙂

আমার মেসেজ পাওয়ার পর সে গ্রুপে স্প্যামিং করা শুরু করলো। নিজেদের কাছে এম্নিতেই গ্রুপটাকে ভালোভাবে মডারেশন করা সম্ভব হচ্ছে না। তার উপর কেউ ইচ্ছে করে স্প্যামিং করলে কী হয় বুঝতেই পারছেন… 🙁 তাকে ব্যক্তিগতভাবে নিষেধ করলাম। সে তো শুনলোই না, উল্টো তর্ক শুরু করলো। তাকে সতর্ক করলাম- নিয়ম না মানলে ব্যান করা হবে। কিন্তু সে শুনলো না। বাধ্য হয়ে তাকে ব্যান করা হলো। সে ওডেস্ক হেল্প গ্রুপের প্রথম ব্যান হওয়া মেম্বার।

অভিযোগে ভারাক্রান্ত আমি… 🙁

সে মেসেজ দিয়ে জানালো- আপনার কাছ থেকে ডোমেইন-হোস্টিং কিনিনি, তাই আপনি আমাকে ব্যান করলেন? অথব তখনো আমি জানিনা সে অন্য জায়গা থেকে ডোমেইন-হোস্টিং কিনেছে। কারণ সে আমার কাছ থেকেই কিনবে বলে কথা দিয়েছিলো। যাই হোক, আমি তার ঐ মেসেজের কোনো রিপ্লাই দিলাম না। সে আরও আজেবাজে কথা লিখে মেসেজ দিলো আমাকে।
তারপর ওডেস্ক হেল্প গ্রুপের মতো আর একটা গ্রুপ খুললো ফেসবুকে। এবং আমাকে নিয়মিত ঐটার আপডেট জানাতে লাগলো… কেন, কী জানি!

বেশ কয়েক সপ্তাহ পরের কথা…

সে আবার একটা মেসেজ দিলো যেটার রিপ্লাই আবার দিতে হলো আমাকে। সে লিখেছে- ভাইয়া, ওডেস্কে প্রথম কাজ পেয়েছি। কিন্তু করতে গিয়ে সমস্যায় পড়লাম। প্লিজ হেল্প মি।
আমি আমার কাজ বন্ধ রেখে তার কাজ করে দিলাম। সে ধন্যবাদ দিলো। এবং জানালো- যাদের কাছ থেকে সে ডোমেইন কিনেছিলো তারা নাকি তার ডোমেইন মেরে দিয়েছে। কারণ সে ডোমেইন কিনেছে ৩৫০ টাকা করে। আমি বললাম, এটা তো সমস্যা হবার কথা না।
সে বলে- না, হয়েছে। এখন আপনার মাধ্যমে ডোমেইন কিনতে চাই। আমি বললাম- আমি ডোমেইন সেল করি ১০০০ টাকা করে। সে বললো- ওকে। এখন সে আমার সাথে দেখা করতে চায়। বললাম- ওকে, আমি ফ্রি হয়ে আপনাকে জানাবো। আমি আর ফ্রি হতে পারি না… :D। আসলে তার কাছে ডোমেইন-হোস্টিং আমার সেল করার ইচ্ছে নাই।

কেন?

কারণ তার মতো ক্লায়েন্ট আমার দরকার নেই। আমি ডোমেইন-হোস্টিং-এর বিজনেস করি মনের আনন্দে। কারও কথা শোনার জন্য নয়। কারও কাছে ডোমেইন-হোস্টিং সেল করার আগে তার সম্পর্কে জেনে নেয়াটা কর্তব্য মনে করি… 🙂

ধ্যাত্তেরি!!!

আজকের পোস্টটা বিরক্তিকর হয়ে গেলো। স্যরি আপুরা, ভাইয়ারা… তবে আমার মনে হয়- আমার টেনশানের কিছু নেই, কারণ পোস্টে কোনো ডিজলাইক সিস্টেম নাইক্কা… 😛

———-
ফটোক্রেডিট: মামুন সৃজন

লেখাটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন:

লেখক সম্পর্কে জানুন:

পান্থ বিহোস

ভবিষ্যতে ফুলটাইম লেখক হিসেবে প্রফেশন তৈরি করার ভাবনায় আপাতত ফুলটাইম ভাবুক। আর পার্টটাইম ওয়ার্কার।

মন্তব্য লিখুন

3 টি মন্তব্য

  • ভাইয়া , আমি আপনার গ্রুপে ছিলাম । কিন্তু যখন আমি প্রথম অনলাইনে আয় শুরু করেছিলাম তখন অনেক ভুল পথে গিয়েছিলাম । আপনি সম্ভবত আমাকে আপনার গ্রুপ থেকে ব্যান করেছেন । শুধু আমাকে না আমার পরিচিত একজন কেও ব্যান করেছেন । আমি জানি আমি ব্যান হবার মত কাজ করেছি কিন্তু বিশ্শাদ করুন এই পর্যন্ত যত যায়্গায় আপনার গ্রুপের সম্পর্কে লেখা দেখেছি ততবার ই আমার ভুলের কথা মনে পরে গেছে । আপনি এখনো আমাকে ব্যান লিষ্টেই রেখেছেন । আপনার কাছে অনুরোধ আপনি এখন পর্যন্ত যাদের ব্যান করেছেন দয়া করে তাদের আনব্যান করে দিন । হয়তো তাদের অনেকেই আমার মত ভুল বুঝতে পেরেছি । যদি আমার অনুরোধ রাখা সম্ভব না হয় তাহলে একটা রিপ্লাই দেবেন প্লিজ ।

    • আমরা অনেককেই আনব্যান করেছি। যে এডমিন আপনাকে ব্যান করেছে সে-ই কেবল পারে আপনাকে আনব্যান করতে। আপনি ফেসবুকে আমাকে ম্যাসেজ দিন… আপনার আনব্যান সম্পর্কে বিবেচনা করা হবে। ধন্যবাদ… ভালো থাকুন, সাথে থাকুন… 🙂